শান্তিচুক্তির ২৩ বছর : চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নের মাধ্যমে পাহাড়ে ফলপ্রসু শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসে ২০২০ ১০:১২

শান্তিচুক্তির ২৩ বছর : চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নের মাধ্যমে পাহাড়ে ফলপ্রসু শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি :
একমাত্রঐতিহাসিকপার্বত্য চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নেরমধ্যদিয়ে পার্বত্য অঞ্চলেফলপ্রসুশান্তিপ্রতিষ্ঠাকরা সম্ভব। এজন্য সকলেরস¦ার্থে বাঙালী-পাহাড়ীসহসকলসম্প্রদায়কেএকসাথে, এক যোগেমিলেমিশে, কাঁধেকাধঁমিলিয়েএবংঐক্যবদ্ধ হয়েকাজকরে যেতেহবে। এতদাঞ্চলেসাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতি ও সহাবস্থানবজায়রাখতেসবাইকেসজাগও সচেষ্ট থাকতেহবে।
রাঙ্গামাটিরিজিয়নকমান্ডারব্রি:জে: মো: ইফতেকুররহমানপিএসসিগতকালবুধবার শান্তিচুক্তি ২৩তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটিতে আয়োজিত এক বিশেষ“নৌকাবাইচপ্রতিযোগিতা”অনুষ্ঠানেপ্রধানঅথিতির বক্তব্যে একথাবলেন।
রাঙ্গামাটিরিজিয়নেরসার্বিকতত্ত্বাবধানেএবং রাঙ্গামাটি জোনেরব্যবস্থাপনায় রাঙ্গামাটি জেলাশহরেরশহিদ মিনারঘাটেকাপ্তাই হ্রদে সকাল ১০টায় এ প্রতিযোগিতাআয়োজনকরাহয়।
অনুষ্ঠানেঅথিতিহিসেবেউপস্থিত ছিলেন, ডিজিএফআই, জিএসকর্ণেলইমরানইবনেরউফ, রাঙ্গামাটি বিজিবির সেক্টরকমান্ডারকর্ণেলএসএসফয়সাল, রাঙ্গামাটি জেলাপরিষদ চেয়ারম্যানবৃষকেতুচাকমা, জেলাপ্রশাসকএকেএমমামুনুররশীদ, পুলিশসুপার মো: আলমগীরকবির, পৌর মেয়রআকবর হোসেন চৌধুরীএবং রাঙ্গামাটি জেলা ক্রীড়াসংস্থার সাধারণসম্পাদক মো: শফিউলআজম।
রিজিয়নকমান্ডারইফতেকুরবলেন, আমরাআজকেনদীমার্তৃক দেশে বিষেশ নৌকাবাইচপ্রতিযোগিতাআয়োজনেরমাধ্যমে শান্তিচুক্তির গুরুত্ব যে অনেকতাঅনুধাবনকরছি।
তিনিবলেন, জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু যে সোনারবাংলাগড়ে তোলার স্বপ দেখেছিলেনতাঁর স্বপ্নকেআমরাআজকেধীরেধীরেবাস্তবেরপদানকরতেযাচ্ছি।
তিনিআরোবলেন, পাহাড়েআমরাআরঅশান্তি, হানাহানি ও রক্তপাত চাইনা। সবাইএকসাথে মিলেমিশেশান্তিপূর্ণভাবেবসবাসনিশ্চিতকরতেচায়। তাইপ্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনাপাহাড়েবসবাসরতবাঙালীসহক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীসম্প্রদায়েরপ্রতিউদারতা, আন্তরিকতা ও ভালবাসাআছেবিধায়পার্বত্য চুক্তি করেছেন। এ চুক্তির মধ্যদিয়ে পাহাড়েবিগতদিনেরপ্রায় দুইযুগেরঅশান্তপাহাড়ের রক্তপাতের পরিসমাপ্তি ঘটে।
জেলাপরিষদ চেয়ারম্যানবৃষকেতুচাকমাবলেন, বিগতবিএনপি-জামাতসরকারেরআমলেপাহাড়ে দীর্ঘদিনের বিরাজমানসমস্যাকেসমাধানকরতেপারেনি। পাহাড়ে রক্তক্ষয়ী সংঘাতবন্ধকরতেপারেনি। একমাত্রবর্তমানপ্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার উদ্যোগে, তাঁরউদারতা, আন্তরিকতায়এবংপ্রচেষ্ঠায়পার্বত্য চুক্তি করাহয়েছে।
তিনিপরিশেষেবলেন, চুক্তির ফলেপাহাড়েশান্তিরপরিবেশবিরাজকরছে। তাই দেশেরঅপরাপর ৬১ জেলারমতপাহাড়েরতিন জেলায়ওব্যাপকউন্নয়নেরকাজএগিয়েচলছে। আর এ উন্নয়নেরসুফলভোগীহচ্ছেঅত্রাঞ্চলেরসকলমানুষ।
অনুষ্ঠানেপ্রতিযোগিতায়পুরস্কার হিসেবেবড় নৌকা (পুরুষ) ও বড় নৌকা (মহিলা)পঞ্চাশহাজারটাকাকরে দেওয়াহয়। এতে দ্বিতীয়পুরস্কার দেয়া হয়পঁয়ত্রিশহাজারটাকাএবংতৃতীয়পুরস্কার দেয়া হয়পঁচিশহাজারটাকা। এতে আরোসাম্পান ও কায়াকপ্রতিযোগিতায়প্ররুষ-মহিলাউভয়কেআলাদাভাবেপ্রথমপুরস্কার দশহাজারটাকা, দ্বিতীয়পুরস্কার সাড়েসাতহাজারএবং তৃতীয়পুরস্কার দেয়া হয়পাঁচহাজারটাকা। প্রতিযোগিতায় মোট ২৪টি দল অংশগ্রহণকরে।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •