শাহ্ আব্দুল করিম লোক উৎসব ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, সকাল ৬:৩১, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

শাহ্ আব্দুল করিম লোক উৎসব ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি

banglanewsus.com
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২৪
শাহ্ আব্দুল করিম লোক উৎসব ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার উজানধলে শাহ্ আব্দুল করিম লোক পরিষদের উদ্যোগে এবার শাহ্ আব্দুল করিম লোক উৎসব অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতি এবং শুক্রবার।

উৎসবটি সফল ও স্বার্থক করে তুলতে সিলেটবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন শাহ্ আব্দুল করিম লোক পরিষদের সভাপতি ও প্রয়াত বাউল সম্রাট শাহ্ আব্দুল করিমের ছেলে শাহ্ নূর জালাল।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টায় সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নূর জালাল বলেন, আমার বাবা জীবিত থাকতে ২০০৬ সালে এ উৎসব শুরু করেছিলাম। তারই ধারাবাহিকতায় এ বছর ১৯তম শাহ্ আবদুল করিম লোক উৎসবের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতি ও শুক্রবার।

তিনি বলেন শাহ্ আবদুল করিম আমার কাছে শুধু একজন পিতাই নন, তিনি একাধারে একজন জাত বাউল, দার্শনিক, পর্যটক এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ। তিনি সবসময় সাধারণ মানুষের কথা বলেছেন, দারিদ্র-পিড়িত মানুষের পক্ষেই ছিল তাঁর সংগ্রাম। তাঁর প্রতিটি কথা ছিল সাম্প্রদায়িকতার অব্যর্থ হাতিয়ার। তিনি জাত-পাত, শ্রেণী-বিদ্বেষ ভুলে মানুষকে সবসময় অসাম্প্রদায়িক জীবন-যাপনের পথে টেনেছেন।

তিনি বলেন, শাহ্ আব্দুল করিমের সৃষ্টি যেনো মানুষের মধ্যে চিরকাল বেঁচে থাকে- এটাই আমাদের চাওয়া এবং আমি আমার বাবার শিল্পকর্মকে প্রচার-প্রসার এবং সংরক্ষণের লক্ষ্যে কাজ করছি। শাহ্ আবদুল করিম লোক উৎসবটি এরই একটি অন্যতম প্রধান অংশ। অনুষ্ঠানটি মূলত আমার বাবার জন্মদিন (১৫ই ফেব্রুয়ারি) উপলক্ষে উদযাপন করে থাকি।

করিমপূত্র বলেন, গত বছরও আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশের সহযোগিতায় অনুষ্ঠানটি সুন্দর এ সফলভাবে সম্পন্ন করেছি। এবারও তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় শাহ্ আবদুল করিম নোক উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।

দুই দিনব্যাপি অনুষ্ঠান প্রতিদিন বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে শুরু ও শেষ হবে ভোরে। এতে করিমের জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি পরিবেশন করা হবে তার গান।

তিনি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান বিকাশকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। পাশাপাশি দু’দিনের অনুষ্ঠানমালার বিস্তারিত বিবরণ সিলেটের গণমাধ্যমগুলোতে তুলে ধরতে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।