শিশু আয়ানের মৃত্যু: ৭ দিনের মধ্যে কারণ অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, দুপুর ২:১৯, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

শিশু আয়ানের মৃত্যু: ৭ দিনের মধ্যে কারণ অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ

newsup
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৫, ২০২৪
শিশু আয়ানের মৃত্যু: ৭ দিনের মধ্যে কারণ অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ

জাতীয় ডেস্ক:

রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুলের ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে খতনা করাতে গিয়ে শিশু আয়ান আহমেদের মৃত্যুর কারণ তদন্ত করে আগামী সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি সারা দেশে লাইসেন্স ছাড়া হাসপাতালের তালিকাও এক মাসের মধ্যে দাখিল করতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকে এসব প্রতিবেদন দিতে হবে।

আজ সোমবার এ-সংক্রান্ত রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লার বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রিটের পক্ষে শুনানি করেন এবিএম শাহজাহান আকন্দ মাসুম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

খতনা করাতে গিয়ে অবহেলায় শিশু আয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না—তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে আয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় জড়িত চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে রুলে।

এর আগে, শিশু আয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় রাজধানীর ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল চেয়ে ৯ জানুয়ারি রিট আবেদন করা হয়। তাতে জড়িত চিকিৎসকদেরও লাইসেন্স বাতিল চাওয়া হয়। পাশাপাশি মৃত আয়ানের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এবিএম শাহজাহান আকন্দ মাসুম জনস্বার্থে এ রিট দায়ের করলেও পরে শিশু আয়ানের বাবা রিটে পক্ষভুক্ত হন। রিটের পর শাহজাহান আকন্দ মাসুম বলেন, ‘সুন্নতে খতনার জন্য অতিরিক্ত অ্যানেসথেসিয়া দেওয়ায় তার (আয়ানের) মৃত্যু হয়। এ ঘটনা সবার সন্তানের ক্ষেত্রে হতে পারে। বিষয়টি হৃদয়বিদারক। তাই আমি জনস্বার্থে রিট করেছি।’

আদেশের পর শিশু আয়ানের বাবা শামীম আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘মামলার পর এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। আশা করি, সবাইকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে। ইউনাইটেড হাসপাতালের পরিচালক বশির আহমেদ মোল্লা আমাদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। তাঁরা আমাকে মৃতদেহ ধরিয়ে দিয়ে ৬ লাখ টাকা দেওয়ার চাপ দিচ্ছেন। তাঁরা কতটা অমানবিক। এ ধরনের হাসপাতালগুলোকে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া উচিত।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।