সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আটকের নিন্দা ও মুক্তির দাবি ইউএস বাংলা অনলাইন প্রেসক্লাব নেতৃবৃনদের 

প্রকাশিত:বুধবার, ১৯ মে ২০২১ ০৫:০৫

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আটকের নিন্দা ও মুক্তির দাবি ইউএস বাংলা অনলাইন প্রেসক্লাব নেতৃবৃনদের 
যুক্তরাষ্ট্র সংবাদদাতা : 
দৈনিক প্রথম আলোর সিনিয়র প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে শারিরিক ভাবে হেনস্থা ও ৬ ঘন্টা আটকে রাখা, পরে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের অনলাইন বাংলা গণমাধ্যমে প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন ইউএস বাংলা অনলাইন প্রেসক্লাব। ইউএস বাংলা অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহফুজ আদনান  ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাদেক রনি এক বিবৃতিতে রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি ও ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।
ইউএস বাংলা অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহফুজ আদনান ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাদেক রনি বিবৃতিতে বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের গলা চেপে ধরে মূলতঃ মুক্ত গণমাধ্যমের গলা চেপে ধরেছে।
বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতাদ্বয় বলেন, সাংবাদিক রোজিনার মত একজন পেশাদার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের এই ধরণের আচরণ মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদ-মাধ্যমের স্বাধীনতার জন্য বড় বাধা। যা দেশের গণতন্ত্রকে চরম ভাবে ব্যাহত করবে। ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নি:শর্ত মুক্তি, মামলা প্রত্যাহার এবং তাঁর উপর নির্যতনের ঘটনায় যারা জড়িত তাদের শাস্তির দাবি জানান ইউএস বাংলা অনলাইন প্রেসক্লাবের নেতৃদ্বয়।
এ ছাড়া সংগঠনটির সিনিয়র সহসভাপতি মাসুম আহমেদ,  সহ সভাপতি হাবিব ফয়েজি, হামিদুর রহমান আশরাফ, সহ সাধারন সম্পাদক সোহেল হোসাইন, আফাজুর রহমান চৌধুরী ফাহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক রিফাত আহমদ, কোষাধ্যক্ষ ফয়জুল ইসলাম চৌধুরী নয়ন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, সাহিত্য সম্পাদক জাবেদ আহমদ, মহিলা সম্পাদক মাসুমা আক্তার হলি, প্রচার সম্পাদক তানিম চৌধুরী, কার্যকরী সদস্য শওকত ওসমান রচি, আবিদুর রহিম, আহবাব চৌধুরী খোকন, এমদাদ হোসেন চৌধুরী দীপু, ইকবাল ফেরদৌস, এম এ আহাদ, জোবায়ের জাবেদ, জুয়েল খান, মুসতাফিজুর রহমান মুরাদ, মেহেদী কাবুল, মাসুমা ফেরদৌসী রুমকি, আবু জাহাংগীর, মোশাহিদ আলী চৌধুরী, রুম্মান চৌধুরী, আব্দুল হাঁকিম বাংলাদেশ সচিবালয় সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আটকে রেখে হেনস্তা করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
যৌথ বিবৃতিতে তারা বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকাল সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে (স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবের একান্ত সচিবের কক্ষে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে হেনস্তা করা ন্যাক্কারজনক। দূর্নীতিতে জর্জরিত স্বাস্হ্য মন্ত্রণালয়ের সকল লুটপাট ও কলঙ্কের মধ্যে এটা একটি নিকৃষ্টতম ঘটনা। পাঁচ ঘন্টা অবরুদ্ধ থেকে রোজিনা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে না নিয়ে থানায় নেওয়া হয় এবং অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের ৩ ও ৫ ধারায় উল্টো অভিযোগ এনে তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এটা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা এবং মুক্ত গণমাধ্যমের প্রতি আক্রোশের প্রতিফলন। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গেলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে রাখা অন্যায় ও অনভিপ্রেত। সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তা করার পেছনে দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে তাদের শাস্তি ও অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জানিয়েছেন প্রবাসী সাংবাদিকরা।

এই সংবাদটি 1,233 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ