সৌদি আরব ও ইউএই সফরে যাচ্ছেন পুতিন - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, দুপুর ২:৫৮, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

সৌদি আরব ও ইউএই সফরে যাচ্ছেন পুতিন

newsup
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৫, ২০২৩
সৌদি আরব ও ইউএই সফরে যাচ্ছেন পুতিন

নিউজ ডেস্ক: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন চলতি সপ্তাহে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই) ও সৌদি আরব সফর করবেন। রুশ প্রেসিডেন্টের সহযোগী ইউরি উশাকভের বরাত দিয়ে রাশিয়ার সংবাদ আউটলেট শট গতকাল সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার তেল উৎপাদন হ্রাসের বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে ওপেক ও এর সহযোগী দেশগুলো।

সে অনুযায়ী ২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে দৈনিক ২ দশমিক ২ মিলিয়ন বা ২২ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানো হবে। এর মধ্যে সৌদি আরব ও রাশিয়ার নিজে থেকেই কমানো ১ দশমিক ৩ বা ১৩ লাখ ব্যারেল অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ওপেকের তেল উৎপাদন কমানোর এ ঘোষণার পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের ইউএই ও সৌদি আরব সফরের ঘোষণা এল।

পুতিনের সহযোগী উশাকভকে উদ্ধৃত করে শট জানায়, পুতিন প্রথমে সংযুক্ত আরব আমিরাত যাবেন।

এরপর সৌদি আরব যাবেন। সেখানে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে তাঁর আলোচনা হবে।

উশাকভ বলেছেন, ‘আমি আশা করি, তাঁদের (পুতিন ও বিন সালমান) মধ্যে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় আলোচনা হবে। একে আমরা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছি।’

পুতিন সাম্প্রতিক বছরগুলোয় খুব কমই বিদেশ সফর করেছেন। যা–ও বা করেছেন, সেগুলোর বেশির ভাগই সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত দেশ ছিল। এর বাইরে তাঁর সবশেষ সফর ছিল চীনে, গত অক্টোবর মাসে।

চলমান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) পুতিনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। এর জেরে তাঁর বিদেশ সফর সীমিত হয়ে পড়েছে।

যদিও রাশিয়া যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে এবং আইসিসির পদক্ষেপকে আপত্তিকর বলে অভিহিত করেছে।

সৌদি আরব বা ইউএই—কোনো দেশই আইসিসির সদস্য নয়। ফলে দেশ দুটিতে পুতিনের গ্রেপ্তার হওয়ার আশঙ্কা নেই।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।