স্বাধীন এবং সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র চাইলেন বাইডেন

প্রকাশিত:শনিবার, ২২ মে ২০২১ ০২:০৫

স্বাধীন এবং সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র চাইলেন বাইডেন

নিউজ ডেস্কঃ  ইজরায়েলের অন্তর্বর্তিকালীন প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু গাজা ভূখণ্ডে গত দু’সপ্তাহ ধরে চলা সংঘর্ষে ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। গাজার নিয়ন্ত্রক ফিলিস্তিনীয় সংগঠন হামাসের সম্মতিতে শুক্রবার ভোররাত থেকে সংঘর্ষ বিরতি কার্যকরও হয়েছে। কিন্তু তার ফলে ওই অঞ্চলে স্থায়ী শান্তির পথ প্রশস্ত হবে বলে মনে করছেন না আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তার মতে, ‘ইজরায়েলের পাশাপাশি স্বাধীন এবং সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের মাধ্যমেই ওই অঞ্চলে শান্তি ফিরতে পারে।’ খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

নেতানিয়াহু সরকারের উপর সংঘর্ষ বিরতি কার্যকরের জন্য পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলির পাশাপাশি আমেরিকাও প্রবল চাপ তৈরি করেছিল। প্রেসিডেন্ট পদে বাইডেনের পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের জমানায় ওয়াশিংটনের পশ্চিম এশিয়া নীতি পুরোপুরি ‘ইজরায়েলপন্থী’ এবং ‘প্যালেস্তাইন-বিরোধী’ হিসেবে পরিচিত হয়েছিল। কিন্তু বাইডেনের শুক্রবারের মন্তব্য তা থেকে সরে আসার ইঙ্গিত বলেই মনে করা হচ্ছে।

নয়ের দশকে আমেরিকার মধ্যস্থতায় প্যালেস্তেনীয় নেতা ইয়াসের আরাফতের সঙ্গে ইজরায়েল সরকার অসলো চুক্তিতে সই করেছিল। সেই চুক্তি মেনে গাজা ভূখণ্ড এবং ওয়েস্ট ব্যাঙ্ক স্বশাসিত অঞ্চল হলেও প্যালেস্তেনীয়দের স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রের দাবি পূরণ হয়নি। ট্রাম্পের জমানা পর্যন্ত প্যালেস্তেনীয়দের সেই দাবি সমর্থনের কোনও বার্তা দেয়নি ওয়াশিংটন। শুক্রবার সেই বার্তা দিলেন বাইডেন।

গত ১০ মে থেকে ইজরায়েলি সেনার ধারাবাহিক হামলায় গাজায় ৬৫ জন শিশু-সহ ২৩২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় ২ হাজার জন। বিমানহামলায় কয়েক হাজার বাড়ি গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইজরায়েল। ফলে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার মানুষের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই। পাল্টা ইজরায়েল সেনা দাবি করেছে, হামাস ও অন্যান্য ইসলামপন্থী সশস্ত্র গোষ্ঠী প্রায় সাড়ে ৪ হাজার রকেট ছুড়েছে।

এই সংবাদটি 1,229 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •