কুতুবদিয়ায় নির্দেশ মানছে না মানুষ! - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, দুপুর ১২:৫৯, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

কুতুবদিয়ায় নির্দেশ মানছে না মানুষ!

ADMIN, USA
প্রকাশিত এপ্রিল ১, ২০২০
কুতুবদিয়ায় নির্দেশ মানছে না মানুষ!

কুতুবদিয়া (কক্সবাজার) :

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে প্রশাসন। সকল প্রকার পরিকল্পনাও নেয়া হয়েছে সুন্দরভাবে। তদারকিও চলছে নিয়মিত। তারপরেও একশ্রেণির মানুষ প্রশাসনের নির্দেশ মানছে না। প্রথম পর্যায়ে প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারনে মানুষ ছিল ঘরে। এসময় রাস্তাঘাট ছিল ফাঁকা। কিন্তু বর্তমানের চিত্র ভিন্ন। সুনশান নিরবতা ভেঙে মানুষ বেরিয়ে এসেছে রাস্তায়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে লুকোচুরি খেলায় যেন মেতে আছে তারা। ধাওয়া দিলে দৌঁড়ে পালায়,পুলিশ চলে গেলে আবার আসে।
দোকানপাট, চলাচলের যানবাহন ও পারাপার বন্ধ করা হলেও বন্ধ হয়নি মানুষের আড্ডা, পথচারির অবাধ চলাফেরা, মাঠে ও সৈকতে সমানে চলছে ছেলেদের খেলাধুলা। প্রকৃতি প্রেমীরা সৈকত দর্শনে হাঁটাছেন হাতে হাত রেখে।
প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে নদী পার হচ্ছে মানুষ। চলছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যবাহী যানবাহন ছাড়াও অন্যান্য যানবাহন। দোকানীরা শাটল একটুকু ফাঁক করে চালিয়ে যাচ্ছেন দোকানদারী।
গত কয়েকদিন দ্বীপের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এ দৃশ্য চোখে পড়ে। দেখা যায় বেলা পরার সাথে সাথে সৈকতের বড়ঘোপ, আলী আকবর ডেইল ও কৈয়ারবিলসহ বিভিন্ন পয়েন্টে ঢাকা-চট্টগ্রাম ফেরত বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা খেলার মাঠে গ্রামের ছেলেদের সাথে ফুটবল ও ক্রিকেট খেলায় মেতে উঠেছে। সৈকতেও দেখা গেছে একই চিত্র।
প্রকৃতি প্রেমীরা করোনাভাইরাসের ছুটিকে কাজে লাগিয়েছেন অবকাশ যাপনে। তারা গায়ে নির্মল বাতাস লাগিয়ে প্রকৃতির পরশ নিচ্ছেন সৈকতে। গল্প-গুজবে হাটছেন সৈকতের এপার থেকে ওপার। আর বয়স্করা আড্ডায় মেতেছেন পাড়ার দোকান ও যাত্রী ছাউনীগুলোতে।

অবশ্যই এসময় প্রায় সকলের মুখ মাস্ক দিয়ে ঢেকে রাখতে দেখা গেছে।
এদিকে এলাকার সচেতন মহল প্রশাসনের গৃহিত কার্যক্রমের প্রশংসা করেছেন। তারা বলেছেন, কুতুবদিয়ায় করোনা প্রতিরোধে প্রশাসন যে উদ্যোগ নিয়েছে তাতে আমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তবে এখনো সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা যায়নি। যে কারণে ফলাফল হতে পারে ভয়াবহ ।
মাত্র আর কয়েকটা দিন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রশাসনের সুনজর কামনা করেছেন তারা। দ্বীপের অবুজ মানুষগুলোকে ঘরে রাখতে প্রয়োজনে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন সচেতন মহল। তারা বলেছেন মানুষ বাঁচলে দেশ বাঁচবে। তাই দ্বীপের তথা দেশের মানুষকে বাঁচাতে সরকারি নির্দেশনা কঠোরভাবে পালন করা হোক।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।