ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ৩৯৪ অভিবাসনপ্রত্যাশী উদ্ধার - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, দুপুর ১:৩৩, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ৩৯৪ অভিবাসনপ্রত্যাশী উদ্ধার

banglanewsus.com
প্রকাশিত আগস্ট ১, ২০২১
ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ৩৯৪ অভিবাসনপ্রত্যাশী উদ্ধার

নিউজ ডেস্কঃ

ভূমধ্যসাগর থেকে ৩৯৪ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই একটি কাঠের নৌকা সাগরে বিপজ্জনকভাবে ভাসছিল। শনিবার দিবাগত রাতে ছয় ঘণ্টার অভিযানে আরোহীদের উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে বাংলাদেশ, মরক্কো, মিসর এবং সিরিয়ার নাগরিক রয়েছেন।

জার্মান এবং ফরাসি দুটি এনজিও সি ওয়াচ ৩ এবং ওশান ভাইকিং এ উদ্ধার অভিযান চালায়। উত্তর আফ্রিকা উপকূলের ৬৮ কিলোমিটার গভীরে তিউনিসিয়ার জলসীমায় তেলক্ষেত্র এবং অন্যান্য জাহাজের কাছাকাছি নৌকাটি ভাসছিল। সিওয়াচ ৩ এনজিওটি প্রথমে ১৪১ জনকে উদ্ধার করে। পরে ওশান ভাইকিং বাকিদের উদ্ধার করে। এই উদ্ধার কাজে সাহায্য করে জার্মান এনজিও রেসকিউ শিপের ইয়াট নাদির।

তবে ওই নৌকার কোনো আরোহী হতাহত হয়েছেন কি–না তা এখনো স্পষ্ট নয়। যাত্রীদের ভারে গভীর সমুদ্রে কাঠের নৌকাটি মাঝখান থেকে ভেঙে পড়ে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, নৌকার ইঞ্জিনও নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। উদ্ধারকারী জাহাজ দেখেই নৌকার আরোহীরা লাফিয়ে সাগরে পড়ে সাঁতরে এগোনোর চেষ্টা করেন।

ইতালি এবং ইউরোপের অন্যান্য দেশে লিবিয়া এবং তিউনিসিয়া থেকে অভিবাসন প্রত্যাশীদের সমুদ্রপথে প্রবেশের ঘটনা বেশি ঘটছে। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে আবহাওয়া পরিস্থিতি শান্ত থাকার কারণে এ প্রবণতা বেড়েছে। তবে অনেক ক্ষেত্রেই বিপজ্জনকভাবে কাঠের নৌকায় সমুদ্র পাড়ি দিতে গিয়ে প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে। ইউরোপের দেশগুলোও অভিবাসনের বিষয়ে কঠোর হচ্ছে। এরপরও এশিয়া ও আফ্রিকা থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অনুপ্রবেশ চেষ্টা থামানো যাচ্ছে না।

জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) হিসাবে, অভ্যন্তরীণ সংঘাত এবং দারিদ্র্য থেকে বাঁচতে আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে মানুষ ভাগ্যের সন্ধানে ইউরোপ পালাচ্ছে। চলতি বছর এভাবে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে কমপক্ষে ১ হাজার ১০০ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।