অবৈতনিক শ্রমে রয়েছে ২৯ শতাংশ নারী - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, বিকাল ৩:২৫, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

অবৈতনিক শ্রমে রয়েছে ২৯ শতাংশ নারী

banglanewsus.com
প্রকাশিত আগস্ট ৩১, ২০২১
অবৈতনিক শ্রমে রয়েছে ২৯ শতাংশ নারী

নিউজ ডেস্কঃ

দেশের বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা, সাতক্ষীরা, জামালপুর, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, রংপুর ও সুনামগঞ্জের ৮৫০টি খানার মধ্যে পরিচালিত এক জরিপে বলা হয়েছে, অবৈতনিক শ্রমের দিক থেকে নারী-পুরুষের মধ্যে রয়েছে বিরাট ব্যবধান। কেবল ৪ দশমিক ২ শতাংশ পুরুষের বিপরীতে দেশের প্রায় ২৯ দশমিক ১ শতাংশ নারী অবৈতনিক শ্রমের আওতাধীন।

এলাকাভিত্তিক কর্মজীবী নারীদের হিসেবে রংপুর বিভাগে সর্বোচ্চ ৩৬ শতাংশ নারী কাজ করেন এবং ময়মনসিংহ ও বরিশাল বিভাগে সর্বনিম্ন ৮ শতাংশ নারী কাজ করেন। গবেষণা প্রতিষ্ঠান সানেম এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে গতকাল রবিবার আয়োজিত ‘বাংলাদেশের অর্থনীতিতে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের ভূমিকা’ শীর্ষক ওয়েবিনারে এ তথ্য জানানো হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ পরিচালক চন্দন গোমেজ।

করোনা ভাইরাস: মহামারির মাঝেও যেভাবে ব্যবসায় সফল এই নারী উদ্যোক্তারা - BBC  News বাংলাঅনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশের অর্থনীতিতে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের ভূমিকার ওপর একটি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সানেমের গবেষণা পরিচালক ড. সায়মা হক বিদিশা এবং সানেমের গবেষক মাহতাব উদ্দিন। আলোচক হিসেবে অংশ নেন পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য মোসাম্মত নাসিমা বেগম, এসএমই উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ গুঞ্জন ডালাকোটি, সহযোগী অধ্যাপক ড. সানজিদা আক্তার, ইউনিলিভার বাংলাদেশের সিনিয়র ক্যাটাগরি হেড লায়লা ফারজানা এবং ইউএন উইমেন বাংলাদেশের প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর মেহজাবিন আহমেদ।

বাংলাদেশে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের সামগ্রিক দৃশ্যমান মূল্যায়ন এবং নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন এবং জিডিপির মধ্যে সম্পর্কের পরিমাপের লক্ষ্যে এই গবেষণা পরিচালনা করেছে। ১৫ বছর বা তার বেশি বয়সি নারীদের ওপর এই জরিপ চালানো হয়েছে। জরিপের ফলাফলে বলা হয়েছে, দেশের ১৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সি পুরুষদের ৮১ দশমিক ৯ শতাংশ উপার্জন করলেও এই বয়সি মাত্র ৩৪ দশমিক ৪ শতাংশ নারী উপার্জনে রয়েছে। শিক্ষাগত যোগ্যতার দিক থেকে কর্মজীবী নারীদের ২২ দশমিক ৯৫ শতাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা গ্রহণকারী, ২০ শতাংশ নারী যারা কোনো আনুষ্ঠানিক শিক্ষা গ্রহণ করেননি। পেশাগত দিক থেকে নারীদের সর্বোচ্চ অংশগ্রহণ দেখা যায় কৃষি, মত্স্য ও বনজ খাতে ৫৩ দশমিক ৮ শতাংশ।

পরিবহনের সময় তৈরি পোশাক পণ্য চুরি ঠেকাতে সরকারের উদ্যোগ | The Business  Standardউপস্থাপনায় সানেমের পক্ষ থেকে বলা হয়, নারী কর্মসংস্থানে এক শতাংশ বৃদ্ধি কার্যকরভাবে সামগ্রিক অর্থনৈতিক বৃদ্ধি করতে পারে ০ দশমিক ৩১ শতাংশ। ২০২১ সালের জিডিপির তথ্য বিবেচনা করলে কেবল ১০ শতাংশ নারীর কর্মসংস্থান বৃদ্ধি দেশের অর্থনীতিতে যোগ করতে পারত বাড়তি ১ হাজার ১৩০ কোটি ডলার (৯৬ হাজার ৫০ কোটি টাকার বেশি)। যদিও স্বল্প সময়কালে জিডিপি ও নারী বা পুরুষের কর্মসংস্থানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কোনো সম্পর্ক নেই।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।