BengaliEnglishFrenchSpanish
লন্ডন প্রবাসী মতিয়ার চৌধুরীর গ্রন্থ 'কামারগাঁও চৌধুরী পরিবারের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত'   -মেকদাদ মেঘ - BANGLANEWSUS.COM
  • ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ


 

লন্ডন প্রবাসী মতিয়ার চৌধুরীর গ্রন্থ ‘কামারগাঁও চৌধুরী পরিবারের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত’   -মেকদাদ মেঘ

editorbd
প্রকাশিত আগস্ট ২৫, ২০২২
লন্ডন প্রবাসী মতিয়ার চৌধুরীর গ্রন্থ ‘কামারগাঁও চৌধুরী পরিবারের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত’   -মেকদাদ মেঘ

লন্ডন প্রবাসী মতিয়ার চৌধুরীর গ্রন্থ ‘কামারগাঁও চৌধুরী পরিবারের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত’   -মেকদাদ মেঘ ।।

পৃথিবী বৈচিত্র্যময়, বৈচিত্র্যময় জীবজগতের বংশ পরম্পরা। বংশগতি, বংশবিদ্যার বৈজ্ঞানিক নয় সামাজিক গবেষণামূলক একটি গ্রন্থ পাঠ করলাম। গ্রন্থটি লন্ডন প্রবাসী, সাংবাদিক ও গবেষক মতিয়ার চৌধুরীর ‘কামারগাঁও চৌধুরী পরিবারের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত’। গ্রন্থটি স্মৃতি পাঠ্য। পাঠ করতে করতে নিজের বংশের স্মৃতি-বিস্মৃতি হৃদয়ে ভাসে।

মতিয়ার চৌধুরীর জন্ম সিলেটে। আদি নিবাস হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার ৪নং দীঘলবাক ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের পুরাদিয়ার মৌজার (নূরগাঁও) পুরাদিয়া গ্রামে। রফিকুল হক চৌধুরী এবং তৌফিকুন নেছা চৌধুরীর পাঁচ ছেলে ও চার মেয়ের মধ্যে মতিয়ার চৌধুরী পঞ্চম।

তাঁর লেখা গ্রন্থসমূহের মধ্যে রয়েছে: ১। কুশিয়ারার বাঁকে (১৯৮১), ২। নৌপথে নাবিক (ভ্রমণ কাহিনি, সম্পাদিত), ৩। নবীগঞ্জের ইতিকথা (ইতিহাস গ্রন্থ, ১৯৮৫), ৪। সিলেট গাইড (সম্পাদিত, ১৯৮৯), ৫। সিলেট বিচিত্রা (সম্পাদিত, ১৯৯০), ৬। সিলেট ও সিলেটি ভাষা (গবেষণা গ্রন্থ, ১৯৯৯), ৭। সিলেটি ভাষা শিক্ষার বই (আট খণ্ড, ১৯৯৮-২০০০), ৮। টেন সিলেটি পোয়েম (অনুবাদ যৌথভাবে জেমস লয়েড উইলিয়ামের সাথে), ৯। যুক্তরাজ্যে সিলেটবাসী (১ ম খণ্ড, ২০০১), ১০। বন্ধু ছাড়া কেমনে রই (প্রকাশিতব্য গানের বই), ১১। সিলেটের মরমি সাহিত্যে রাধাকৃষ্ণের প্রভাব, ১২। স্মৃতির মণিকোঠায় (বাছাইকৃত লেখা) এবং ১৩। কামারগাঁও চৌধুরী পরিবারের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত (২০২১)।

এছাড়া পঞ্চাশটিরও বেশি সিলেটি নাগরি পুথির অনুবাদসহ সিলেটি ভাষার উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন মতিয়ার চৌধুরী।  এই গ্রন্থটি কামারগাঁও চৌধুরী বংশের মুসাফিরনামা। বাসিয়া প্রকাশনী মার্চ ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে গ্রন্থটি প্রকাশ করে একটি ব্যতিক্রম কর্ম সম্পাদন করল। তবে লেখকের প্রতি অনুরোধ, আরও বিস্তৃত পরিসরে পরবর্তী সংস্করণে মুদ্রণ করার।

এ গ্রন্থটি ক্রমান্বয়ে হয়ে উঠুক পরিপূর্ণ ইতিবৃত্ত— এটা আমাদের প্রত্যাশা। কেননা গ্রন্থটি ইতিহাসের প্রতি আগ্রহী পাঠকের পরিধি বৃদ্ধির সহায় একটি গ্রন্থ।

এই সংবাদটি 1,237 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।