BengaliEnglishFrenchSpanish
পারমাণবিক যুদ্ধের হুঁশিয়ারি মেদভেদেভের - BANGLANEWSUS.COM
  • ১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ


 

পারমাণবিক যুদ্ধের হুঁশিয়ারি মেদভেদেভের

newsup
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৯, ২০২৩
পারমাণবিক যুদ্ধের হুঁশিয়ারি মেদভেদেভের

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অনুগত সাবেক রুশ প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ইউক্রেন যুদ্ধে ‘পারমাণবিক শক্তির পরাজয়ে পারমাণবিক যুদ্ধের সূত্রপাত’ ঘটতে পারে। ইউক্রেনে ন্যাটোর সামরিক বাহিনীর সহায়তা নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) টেলিগ্রামে এ কথা বলেন তিনি।

রাশিয়ায় পুতিনের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের উপ-প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মেদভেদেভ। এর আগে তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে চার বছর কাজ করেন। ওই সময় পুতিন ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের পর নিজেকে কট্টর যুদ্ধবাজ অনেকটা সেভাবেই নিজেকে তুলে ধরেছেন করেছেন মেদভেদেভ। তিনি ইউক্রেনীয়দের ‘তেলাপোকা’ হিসেবেও উল্লেখ করেছেন। কিয়েভকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার আক্রমণ শুরুর পর থেকে একাধিকবার তিনি পারমাণবিক বিশৃঙ্খলার হুমকি দিয়েছেন এবং পশ্চিমাদের লক্ষ্য অবমাননামূলক মন্তব্য করেছেন। বিদায়ী বছরের শেষ দিকে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে বৈঠকও করেছেন।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও পারমাণবিক হুমকি দিয়ে রেখেছেন। তিনি গত বছর বলেন, এটি কোনও ধাপ্পা নয়। যারা আমাদের পারমাণবিক অস্ত্র দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করবে, তাদের মনে রাখা উচিত পরিস্থিতি বদলে যেতে পারে এবং তা তাদের দিকে মোড় নিতে পারে।

ইউক্রেনে মস্কোর চলা যুদ্ধে এ পর্যন্ত হাজার হাজার বেসামরিক মানুষ মারা গেছেন। ধ্বংস হয়ে গেছে অনেক শহর। এই যুদ্ধে রাশিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক সহায়তা দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রসহ ন্যাটো সদস্য দেশগুলো। এ পর্যন্ত কয়েক বিলিয়ন সামরিক সহায়তা দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। ধারাবাহিকভাবে আরও মানবিক ও অস্ত্র সহায়তা দেবে জেলেনস্কির সরকারকে। ইউক্রেনকে কোনও সামরিক সহায়তা না দিতে পশ্চিমা নেতাদের বার বার সতর্ক করে আসছে ক্রেমলিন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।