টানা পঞ্চম শিরোপা জিতে বসুন্ধরা কিংসের অনন্য ইতিহাস - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, রাত ১০:১১, ১৭ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

টানা পঞ্চম শিরোপা জিতে বসুন্ধরা কিংসের অনন্য ইতিহাস

newsup
প্রকাশিত মে ১১, ২০২৪
টানা পঞ্চম শিরোপা জিতে বসুন্ধরা কিংসের অনন্য ইতিহাস

নিউজ ডেস্ক: মোহামেডানকে হারালেই টানা পঞ্চম লিগ শিরোপা নিশ্চিত—এই সমীকরণ সামনে রেখে আজ ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে খেলতে নেমেছিল বসুন্ধরা কিংস। পূরণ হয়েছে লাল জার্সিধারীদের সেই লক্ষ্য। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার দরিয়েলতন গোমেজের জোড়া গোলে মোহামেডানকে ২-১ গোলে হারিয়ে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কিংস।

২০১৯ সালের ২৫ জুলাই অভিষেক মৌসুমেই প্রিমিয়ার লিগ জিতেছিল করপোরেট দলটি। মোহামেডানের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে দুই ম্যাচ হাতে রেখে সেবার লক্ষ্যে পৌঁছায় অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা। ২০২০ সালে করোনায় লিগ হয়েছে পরিত্যক্ত। ২০২১ সালের ৯ আগস্ট চার ম্যাচ হাতে রেখেই দ্বিতীয়বার কিংস জিতে নেয় লিগ শিরোপা।

২০২২ সালের ১৮ জুলাই মুন্সিগঞ্জ স্টেডিয়ামে সাইফ স্পোর্টিংকে ২-০ গোলে হারিয়ে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন কিংস। গত বছর ২৬ মে আসে টানা চতুর্থ শিরোপা। শেখ রাসেলকে ৬-৪ গোলে হারিয়ে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই চতুর্থ শিরোপা ঘরে তোলে বসুন্ধরা। স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম ও একমাত্র ক্লাব হিসেবে টানা চারটি লিগ জয়ের রেকর্ড গড়ে কিংস। নিজেদের গড়া সেই রেকর্ডটাকেই আজ আরও উঁচুতে তুলে কিংস আজ জিতল টানা পঞ্চম লিগ শিরোপা।

শিরোপা নিশ্চিত করার পথে শুরু থেকে তিনটি সুযোগ নষ্ট করে চতুর্থবার আর ভুল করেননি দরিয়েলতন। পরিকল্পিত আক্রমণ থেকে মোরছালিন বল দেন মিগুয়েলকে। মিগুয়েল থেকে দরিয়েলতন বল পেয়ে প্লেসিং করেন সহজেই। ৫২ মিনিটে শেখ মোরছালিনের কর্নার থেকে অরক্ষিত দরিয়েলতনের হেডে হয় ২-০।

মোহামেডান প্রথমার্ধে নামের প্রতি সুবিচার কতে পারেনি। শুরু থেকে কিছুটা যেন গুটিয়ে থাকে। সেভাবে সুযোগও তৈরি করতে পারেনি। ৩৯ মিনিটে উজবেক মিডিফিল্ডার মোজাফরভের দারুণ শট পাঞ্চ করেন ফিরিয়ে দেন কিংস গোলকিপার মেহেদি হাসান শ্রাবণ। দ্বিতীয়ার্ধের আরিফ আর শাহরিয়ার ইমন মাঠে নামার পর গতি আসে মোহামেডানের খেলায়। ৬৫ মিনিটে গোলও পেয়ে যায় সাদাকালোরা। দারুণ গোল করেছেন মিনহাজুল আবেদিন। নিজে আক্রমণ গড়েছেন, সেই আক্রমণকে নিজেই দিয়েছেন সফল পরিণতি। বাঁ পায়ের প্লেসিংয়ে করেন ২-১।

ম্যাচ তখন জমে ওঠে। পরপরই দ্বিতীয় গোলটা প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল মোহামেডান। শাহরিয়ার ইমনের শট লাগে কিংস গোলকিপারের গায়ে, মোজাফরভের ফিরতি শট প্রতিহত কিংসের এক ডিফেন্ডারের গায়ে। অন্তিম সময়ে শ্রাবণের বাঁচান কিংসকে। নইলে ম্যাচটা ড্র হয়ে যেতে পারত।

ম্যাচের শুরু থেকেই গ্যালারিতে ‘বসুন্ধরা’ ‘বসুন্ধরা’ স্লোগান শুরু হয়ে গিয়েছিল। বিশাল স্টেডিয়ামের দুই পাশে কিছু দর্শক ছিলেন যার বেশির ভাগই কিংসের টি শার্ট গায়ে। শেষ বাঁশির সঙ্গে সঙ্গে কিংসের ফুটবলাররা গায়ে জড়ান পঞ্চম শিরোপা লেখা টি শার্ট। এই আনন্দ নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার। কোচ অস্কার ব্রুজোনকে কাঁধে তুলে নেন কিংসের ফুটবলাররা। কিংসের পাঁচটি লিগ শিরোপাই এসেছে তাঁর হাত ধরে।
১৫ ম্যাচে কিংসের পয়েন্ট ৪০। সমান ম্যাচে মোহামেডানের ২৮, আবাহনীর ২৬। লিগে ম্যাচ বাকি আর তিনটি। লড়াইটা এখন আবাহনী আর মোহামেডানের মধ্যে রানার্সআপ হওয়ার। কিংস চলে গেছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।