কানাডায় মুসলিম পরিবারকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

প্রকাশিত:শনিবার, ১২ জুন ২০২১ ০৫:০৬

কানাডায় মুসলিম পরিবারকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

নিউজ ডেস্কঃ

কানাডার অন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরে পূর্ব-পরিকল্পিত হামলায় এক মুসলিম পরিবারের চার সদস্যকে হত্যার প্রতিবাদে হাজারো মানুষ র‌্যালি করেছে। এ সময় তাদের হাতে প্রতিবাদী বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড ছিল। শুক্রবার (১১ জুন) প্রায় ৭ কিলোমিটার পথ তারা পায়ে হেঁটে এই বিক্ষোভ করেছে। খবর প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লন্ডন শহরের যে স্থানে হামলা চালানো হয়েছিল সেখান থেকে র‌্যালি শুরু হয় এবং যেখান থেকে অভিযুক্ত সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়েছে সেখানে গিয়ে শেষ হয়। প্ল্যাকার্ডগুলোতে লেখা ছিল ‘এখানে ঘৃণার কোনো বাড়ি নেই’, ‘ভালোবাসা ঘৃণার উর্ধ্বে’। অন্টারিও প্রদেশের অন্যান্য শহরেও এমন বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কানাডায় মুসলিম পরিবারকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভজানা গেছে, নিহতদের মধ্যে তিনজন নারী। একজনের বয়স ৭৪ বছর, অপরজন তার পূত্রবধু মাদিহা সালমান (৪৪)। এ ছাড়া পূত্র সালমান আফজাল (৪৬) এবং ১৫ বছর বয়স্ক নাতনি ইয়ুমনা আফজালও নিহত হয়েছে।

পুলিশ জানায়, পূর্ব-পরিকল্পিতভাবে পিকআপ ট্রাক চাপা দিয়ে ওই পরিবারটির সবাইকে হত্যা করতে চেয়েছিল অভিযুক্ত খুনি। কিন্তু ভাগ্যক্রমে একমাত্র সদস্য হিসেবে নয় বছরের শিশু (ফয়েজ আফজাল- সালমান আফজালের পূত্র) বেঁচে গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে কানাডা পুলিশ।

অভিযুক্ত ২০ বছর বয়সী কানাডিয়ান তরুণ। তার বিরুদ্ধে ৪ জনকে হত্যা ও এক জনকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে। বলা হচ্ছে, ২০১৭ সালে কুইবেক শহরের মসজিদে ৬ জনকে হত্যার পর কানাডার মুসলিমদের ওপর এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা।

গত মঙ্গলবার কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এ ঘটনাকে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলেন, এটি একটি সন্ত্রাসী হামলা ছিল। অপরাধী ঘৃণা দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে এ হামলা চালিয়েছে। অনলাইন এবং অফলাইনে আমরা ঘৃণার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবো। এই ধরনের গোষ্ঠীগুলোকে ধ্বংস করতে আরো পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এই সংবাদটি 1,232 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •