ধর্মপাশায় ধান কাটতে ইউএনও’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, সকাল ১০:৫৫, ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

ধর্মপাশায় ধান কাটতে ইউএনও’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

ADMIN, USA
প্রকাশিত এপ্রিল ২০, ২০২০
ধর্মপাশায় ধান কাটতে ইউএনও’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

 

ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) :
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় হাওরে বোরো ধান কাটার শ্রমিক সংকট দূরীকরণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পক্ষ থেকে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ধান কাটতে আসা বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষকে দেওয়া হচ্ছে বিশেষ প্রণোদনা। শ্রমিকদের জন্য ব্যবস্থা করা হচ্ছে ত্রাণের। আর এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন স্থানীয় কৃষকেরা। গত রোববার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারীদের সাথে হাওরে ধান কাটার জন্য সকলকে আহ্বান জানান। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ইউএনওর এমন ডাকে সাড়া দিয়ে স্বেচ্ছায় ধানতে কাটতে শ্রমিকসহ ১ হাজার ৭০০ জন ব্যক্তি আগ্রহ প্রকাশ করেন।
সোমবার উপজেলার বিভিন্ন হাওরে ওইসব স্বেচ্ছাসেবী ও শ্রমিকেরা ধান কাটায় অংশগ্রহণ করেন। ওইদিন দুপুরে ধারাম হাওরে শ্রমিকদের উৎসাহ দিতে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তালেব, কৃষি কর্মকর্তা মো. নাজমুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রজেশ চন্দ্র দাস, পল্লী জীবিকায়ন কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম সোহাগ, উপ-সহকারী প্রকৗশলী মাহমুদুল ইসলাম, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সুজাদুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, সাখাওয়াত হোসেন সোহাগ, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ইসহাক মিয়া, সাংবাদিক সাজিদুল হক সাজুসহ শতাধিক শ্রমিক ধান কাটায় অংশগ্রহণ করেন।
ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তালেব বলেন, ‘আমাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের সহযোগীতায় যারা ধান কাটায় অংশগ্রহণ করেছেন তাদের মধ্যে অসচ্ছল, কর্মহীন ও দিনমজুরদের ধান কাটায় উৎসাহ দেওয়ার জন্য প্রণোদনা হিসেবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ ৩০০ টাকা, গামছা, বিস্কুট, সাবান ও পানি দেওয়া হয়েছে। শ্রমিকদের জন্য থাকছে ত্রাণের ব্যবস্থা।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।