অজানা তথ্য জানা যাবে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, সকাল ১১:০৪, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

অজানা তথ্য জানা যাবে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে

newsup
প্রকাশিত মার্চ ৪, ২০২৩
অজানা তথ্য জানা যাবে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে

ডেস্ক নিউজ: পৃথিবীতে যে কয়টি স্বাধীন জাতির মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আছে, তার মধ্যে বাঙালি জাতির মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অন্যতম গৌরবমণ্ডিত। তাই দেশের একজন নাগরিক হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানা খুবই জরুরি।
প্রথমে আমাদের নিয়ে যাওয়া হলো জাদুঘরের মিলনায়তনে। এটি মূলত মাটির নিচে অবস্থিত, সিঁড়ি দিয়ে নিচের দিকে নামতে হয়। মিলনায়তনে একজন শিক্ষক ছিলেন। তিনি খুব সুন্দরভাবে আমাদের বুঝিয়ে দিলেন কোন গ্যালারিতে কী আছে ও কীভাবে দেখতে হবে এসব।

তিনি খুবই অনুপ্রেরণামূলক একটি বক্তব্য রেখেছিলেন। মিলনায়তনে একটি তথ্যচিত্রও দেখানো হয়েছিল। তথ্যচিত্রটিতে ১৯৪৮-১৯৭২ সাল পর্যন্ত ঘটনাবলী স্থান পেয়েছে।

ভাষা আন্দোলন, গণঅভ্যুত্থান, সামরিক শাসন, আগরতলা মামলা, ৭০’ এর নির্বাচন, মুজিবনগর সরকার গঠন, মুক্তিযুদ্ধের নির্মমতা, নৃশংস হত্যা চিত্র, শরণার্থী শিবিরে চিত্র, বিজয়ের দিন, সরকার গঠন ইত্যাদি ঘটনাবলী স্থান পেয়েছে তথ্যচিত্রটি।
সেটি দেখানোর পর নিয়ে যাওয়া হলো গ্যালারিগুলোতে। গ্যালারি ১ এ আছে প্রাচীন বাংলার সামাজিক নিদর্শনাবলী। ব্রিটিশ আমলের বিভিন্ন চিত্রকর্ম, তৈজসপত্র, দলিলপত্র, মসলিন কাপড়সহ আরও বিভিন্ন নিদর্শন।

অবিস্মরণীয় বিভিন্ন বিখ্যাত ব্যক্তিদের উক্তি ও ছবি সুসজ্জিতভাবে সাজানো রয়েছে। গ্যালারি ২ এ আছে মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত বিভিন্ন অস্ত্র সরঞ্জাম। সেই সময়ের প্রকাশিত হওয়ার বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা সাজানো আছে। পত্রিকাগুলো মুক্তিযুদ্ধের অসামান্য দলিলের স্বাক্ষর রাখে।

মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বহির্বিশ্বের প্রকাশিত হওয়া পত্রিকাগুলোও ছিল। ১৯৭১ সালের ১৪ই মে The Times পত্রিকাতে ‘PAKISTAN That Is Moment To Show That Man Is More Than An Internal Problem’ এই শিরোনাম সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল। সংবাদের ছবিতে নৃশংসভাবে হত্যা করা একটি মরদেহের ছবি প্রকাশ করা হয়েছিলোল।

গ্যালারি ৩ এ জাতীয় পর্যায়ের তৎকালের নেতৃবর্গের ব্যবহার্য জিনিসপত্র, জামা ইত্যাদিও ছিল। বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভিন্ন কর্মসূচির ছবি ও তথ্যও সুসজ্জিতভাবে আছে সেখানে। ওই গ্যালারিতে একটি জিপ গাড়ি রাখা ছিল যা মুক্তিযুদ্ধের সময় একটি দেওয়াল ভেঙে ভিতরে ঢুকে পড়েছিল।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষে আয়োজিত ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশের’ অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ছিল। গ্যালারি ৪ এ সাত বীরশ্রেষ্ঠের প্রতিকৃতি আছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বাংলাদেশের প্রথম সংবিধান (হস্তলিখিত) এর অনুলিপি ছিল।

বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে আরও বহু নিদর্শন ও প্রমাণাদি আছে। পাকিস্তানি বাহিনীর যে নির্মমতা বাঙালির উপর প্রয়োগ করেছিল তা জাদুঘর না দেখলে আমরা অনুধাবন করতে পারতাম না। মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে সব বাঙালিরই মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর পরিদর্শন করতে হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।