‘বাড়ি থেকে পালিয়ে’ - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, সন্ধ্যা ৬:৩২, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

‘বাড়ি থেকে পালিয়ে’

editorbd
প্রকাশিত জুন ১৪, ২০২৪
‘বাড়ি থেকে পালিয়ে’

ডেস্ক রিপোর্ট: একটি বুক ক্যাফেতে রাতুল ও সূচির পরিচয়। বই নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়শই আলাপ হয়। ব্যক্তিগত বিষয়ে এতদিন কথা হয়নি। তবে মনে মনে দু’জন দু’জনকে পছন্দ করেন। একদিন অফিস শেষে ক্যাফেতে বসে বই পড়ছিলেন রাতুল। কিছুক্ষণ পরে আসেন সূচি। বইয়ে মনোযোগ থাকায় রাতুল তাকে খেয়াল করেননি। সূচি একটা বই নিয়ে রাতুলের থেকে কিছুটা দূরে বসেন। হঠাৎ রাতুল খেয়াল করেন সূচি বই সামনে রেখে কাঁদছেন। রাতুল দ্রুত তার সামনে গিয়ে বসেন এবং কান্নার কারণ জানতে চান। সূচি জানান, আজ তার বিয়ে। এক শিল্পপতির ছেলের সঙ্গে বাবা তাকে জোর করে বিয়ে দিচ্ছেন। তাই বাসা থেকে পালিয়ে এসেছেন। এখন সে কোথায় যাবেন, বুঝতে পারছে না। রাতুলের সাহায্য কামনা করেন সূচি। কোথাও থাকার ব্যবস্থা করতে না পেরে সূচিকে রাতুল তার নিজের বাসায় নিয়ে যান। রাতুল ব্যাচেলর। কলিগদের সঙ্গে একটা ফ্ল্যাটে থাকেন। কলিগদেরকে বুঝিয়ে রাতে নিজের রুমে সূচিকে থাকতে দিয়ে অন্য কলিগের রুমে ঘুমান রাতুল। পরের দিন সকালে অফিসে যাওয়ার জন্য বের হন রাতুল। কিন্তু গেটে গিয়ে দেখেন একদল লোক দাঁড়িয়ে আছেন। সূচি এখানে আছে কিনা জানতে চাওয়া হয়। রাতুল অস্বীকার করলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে মারধর শুরু করেন সূচির বাবার ম্যানেজার। হইচই শুনে দৌড়ে আসেন সূচি। রাতুলের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়ান সূচি। সূচির বাবা তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যেতে চান। তখন ঘটনা মোড় নেয় ভিন্ন দিকে। এমন গল্প নিয়ে গড়ে উঠেছে ‘বাড়ি থেকে পালিয়ে’ শিরোনামের একক নাটকের কাহিনি। এতে সূচি চরিত্র রূপায়ন করেছেন তানজিন তিশা। আর রাতুল চরিত্রে দেখা যাবে খায়রুল বাশারকে। সেরনিয়াবাত শাওন রচিত নাটকটি পরিচালনা করেছেন এল আর সোহেল। ঈদুল আজহার পঞ্চম দিন রাত ৮টায় মাছরাঙা টিভিতে প্রচার হবে নাটকটি। একটি বুক ক্যাফেতে রাতুল ও সূচির পরিচয়। বই নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়শই আলাপ হয়। ব্যক্তিগত বিষয়ে এতদিন কথা হয়নি। তবে মনে মনে দু’জন দু’জনকে পছন্দ করেন। একদিন অফিস শেষে ক্যাফেতে বসে বই পড়ছিলেন রাতুল। কিছুক্ষণ পরে আসেন সূচি। বইয়ে মনোযোগ থাকায় রাতুল তাকে খেয়াল করেননি। সূচি একটা বই নিয়ে রাতুলের থেকে কিছুটা দূরে বসেন। হঠাৎ রাতুল খেয়াল করেন সূচি বই সামনে রেখে কাঁদছেন। রাতুল দ্রুত তার সামনে গিয়ে বসেন এবং কান্নার কারণ জানতে চান। সূচি জানান, আজ তার বিয়ে। এক শিল্পপতির ছেলের সঙ্গে বাবা তাকে জোর করে বিয়ে দিচ্ছেন। তাই বাসা থেকে পালিয়ে এসেছেন। এখন সে কোথায় যাবেন, বুঝতে পারছে না। রাতুলের সাহায্য কামনা করেন সূচি। কোথাও থাকার ব্যবস্থা করতে না পেরে সূচিকে রাতুল তার নিজের বাসায় নিয়ে যান। রাতুল ব্যাচেলর। কলিগদের সঙ্গে একটা ফ্ল্যাটে থাকেন। কলিগদেরকে বুঝিয়ে রাতে নিজের রুমে সূচিকে থাকতে দিয়ে অন্য কলিগের রুমে ঘুমান রাতুল। পরের দিন সকালে অফিসে যাওয়ার জন্য বের হন রাতুল। কিন্তু গেটে গিয়ে দেখেন একদল লোক দাঁড়িয়ে আছেন। সূচি এখানে আছে কিনা জানতে চাওয়া হয়। রাতুল অস্বীকার করলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে মারধর শুরু করেন সূচির বাবার ম্যানেজার। হইচই শুনে দৌড়ে আসেন সূচি। রাতুলের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়ান সূচি। সূচির বাবা তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যেতে চান। তখন ঘটনা মোড় নেয় ভিন্ন দিকে। এমন গল্প নিয়ে গড়ে উঠেছে ‘বাড়ি থেকে পালিয়ে’ শিরোনামের একক নাটকের কাহিনি। এতে সূচি চরিত্র রূপায়ন করেছেন তানজিন তিশা। আর রাতুল চরিত্রে দেখা যাবে খায়রুল বাশারকে। সেরনিয়াবাত শাওন রচিত নাটকটি পরিচালনা করেছেন এল আর সোহেল। ঈদুল আজহার পঞ্চম দিন রাত ৮টায় মাছরাঙা টিভিতে প্রচার হবে নাটকটি।

সুত্র:এফএনএস ডটকম

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।