আমেরিকার নেতৃত্বে মুসলিম যুব সমাজকে এগিয়ে আসার আহবান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার, ২২ জানু ২০১৯ ০৪:০১

আমেরিকার সরকারী হিসাবে মুসলমানদের সংখ্যা ৩০লক্ষ, বেসরকারীভাবে ১কোটি মুসলমান আমেরিকায় বাস করেন ৷ ২৮শত মসজিদ আছে, ৫৭ টি মুসলিম দেশের ৩৫ হাজার ডাক্তার, ৩০ হাজার ইঞ্জিনিয়ার ২৫ হাজার শিক্ষক এক লক্ষের উপর ব্যবসায়ী আছেন ৷ এর মধ্যে বাংলাদেশী আমেরিকান ৫ হাজার ইঞ্জিনিয়ার ১২শতের মত ডাক্তার,৪ শত ফার্মাসিষ্ট, ৩০ হাজার বাড়ীর মালিক ও কয়েক হাজার ব্যবসায়ী আছেন ৷ আমেরিকা যখন ১৭৭৬ সালে স্বাধীনতা লাভ করে তখন মুসলিম দেশ মরোক্ক আমেরিকাকে স্বীকৃতি দেয় ৷ ১৪৯২ সালে কলম্বাস যখন আমেরিকা আবিষ্কার করেন তখন ২ জন স্পানিশ মুসলিন নাবিক কলম্বাসকে গাইড দিয়ে আমেরিকা নিয়ে আসেন ৷ ১৯৭০ সালের দিকে ডঃ ফজলুর রহমান খান আমেরিকার সর্বউচ্চ বিল্ডিং তৈরী করে অমর হয়ে আছেন ৷ বর্তমানে ডঃ আতাউল করিম (বড়লেখা সিলেট) মেগনেটিক ট্রেন আবিষ্কার করেন ৷ আমেরিকার অর্থনৈতিক উন্নয়নে মুসলমানরা মেধা ও জ্ঞান দিয়ে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে ৷ আমেরিকার স্বাধীনতার ২৪৩ বছরের ইতিহাসে প্রথম ১৯৯১ সালের ২৫জুন ইমাম শিরাজ ওহাজ হাউস অফ রিপ্রেজেনটেটিভে মুসলিম প্রার্থনার মাধ্যমে উদ্বোধন করেন ৷ হাউস অফ সিনেটে ১৯৯২ সালের ৬ই ফ্রেব্রুয়ারী ইমাম ওয়ারিদ দীন মোহাম্মদ মুসলিম প্রার্থনার মাধ্যমে উদ্বোধন করেন ৷ কংগ্রেসের সদর দপ্তর ক্যাপিটাল হিলে ১৯৯২ সালের ২১ শে ফেব্রুয়ারী শুক্রবার প্রথম জুম্মার নামাজ আনুষ্ঠানিক ভাবে আদায় করেন, এই অনুষ্ঠানে আমি হাসান আলী উপস্হিত হতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি৷ প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সময় ১৯৯২ সাল থেকে হোয়াইট হাউসে মুসলমানদের জন্য ইফতারের ব্যবস্হা ও ঈদের সময় মুসলমানদের জন্য বাণী পাঠানোর রেয়াজ আরম্ভ হয় ৷ কালো বাপের সন্তান বারাক ওবামা যদি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হতে পারেন তবে আমাদের মেধাবী সন্তানেরাও আমেরিকার কংগ্রেসম্যান, সিনেটর, গভর্ণর এমনকি প্রেসিডেন্টও হতে পারবে ইনশাল্লাহ ৷ তবে আমাদের মেধাবী ছাত্ররা নিজ নিজ এলাকার সুবিধা বঞ্চিত মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ফেডারেল জব ও ব্যবসায়ের কন্টাক্ঠ পেতে সাহায্য করলে দারিদ্রসীমার উপরে উঠে উন্নত জীবন যাপন করতে পারবে ৷

অন্যদিকে নিজ নিজ এলাকার সাধারন মানুষের নিরাপত্তা বিধানে পুলিশ প্রিজন্টের সহায়তায় সাহায্য করলে সাধারন মানুষের মন জয় করে এলাকার নির্বাচিত প্রতিনিধি হতে সহায়ক হবে ৷ প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা কমিউনিটি সার্ভিসের মাধ্যমে জন প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছিলেন ৷ এখন আমাদের প্রধান কর্তব্য যুবকদের সংগঠিত করে নিজ নিজ এলাকার ডেমক্রেটিক বা রিপাবলিকান ক্লাবের মেম্বার হতে সহায়তা করা ৷ আমাদের সাউথ এশিয়ান সংগঠন Alliance of South Asian American Labor(ASAAL)এর সদস্য করতে হবে ৷ জনাব মাফ মিসবাহ উদ্দিন এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট ৷

বাংলাদেশী আমেরিকানদের অন্যতম সংগঠন বাংলাদেশী আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিল(BACC) এর লিডার বিশিষ্ট আইনজীবী জনাব মোহাম্মদ এন মজুমদার সাহেবকে এবিষয়ে এগিয়ে আসার আহবান জানাচ্ছি ৷ আমি হাসান আলীকে এই সংগঠনের ট্রাষ্টি বোর্ডের মেম্বার নিযুক্ত করা হয়েছে ৷ বাংলাদেশী আমেরিকানদের অন্যতম নেতা জনাব ডাঃ এম এম বিল্লাহ, জনাব মোর্শেদ আলম, জনাব এটর্ণী মঈন চৌধুরী, জনাব ডঃ শওকত আলী সহ সবার সহযোগিতা কামনা করি ৷ শুধু লিখলে হবে না, বাস্তবে সবাইকে নিয়ে কাজ আরম্ভ করতে চাই ৷আল্লাহ আমাদের সহায় হউন ৷

হাসান আলী, আহবায়ক আমেরিকান মুসলিম পলিটিকেল একশন কমিটি ৷

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •