ভারতের গুজরাটে বজ্রপাতে ২০ জনের মৃত্যু - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, বিকাল ৫:৩৬, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

ভারতের গুজরাটে বজ্রপাতে ২০ জনের মৃত্যু

newsup
প্রকাশিত নভেম্বর ২৭, ২০২৩
ভারতের গুজরাটে বজ্রপাতে ২০ জনের মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক: ভারতের গুজরাট রাজ্যের বিভিন্ন অংশে গতকাল রোববার বজ্রপাতে ২০ জন নিহত হয়েছেন। ভারতের স্টেট ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টারের (এসইওসি) একজন কর্মকর্তা আজ সোমবার জানান, গুজরাটের বিভিন্ন অংশ থেকে এখনো পর্যন্ত বজ্রপাতে মোট ২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য ইকোনমিক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, অসময়ের এই প্রবল বৃষ্টি ও খারাপ আবহাওয়ায় রাজ্যটিতে ফসলেরও ক্ষতি হয়েছে। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। এ ছাড়া স্থানীয় প্রশাসনকে ত্রাণ কাজ পরিচালনা করার নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

এসইওসি জানায়, গুজরাটের দাহোদ জেলায় চারজন, ভারুচে তিনজন, তাপিতে দুজন এবং আহমেদাবাদ, আমরেলি, বানাসকাথা, বোটাদ, খেদা, মেহসানা, পঞ্চমহল, সবরকাথা, সুরাট, সুরেন্দ্রনগর এবং দেবভূমি দ্বারকায় রোববারের বজ্রপাতে একজন করে মারা গেছেন।

এসইওসির তথ্য অনুসারে, গুজরাটের ২৫২টি জেলার মধ্যে ২৩৪ টিতে রোববার বৃষ্টিপাত হয়েছে। সুরাট, সুরেন্দ্রনগর, খেদা, তাপি, ভরুচ এবং আমরেলি জেলায় ১৬ ঘণ্টায় ৫০-১১৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে- যাতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হওয়া ছাড়াও ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

রাজকোটের কিছু অংশে শিলাবৃষ্টি হয়েছে। ফসলের ক্ষতির পাশাপাশি প্রবল বৃষ্টিতে কারখানা বন্ধ রাখতে বাধ্য হওয়ায় সৌরাষ্ট্র অঞ্চলের মরবি জেলার সিরামিক শিল্পও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

আজ সোমবার বৃষ্টির তীব্রতা কমবে বলে আশা প্রকাশ করেছে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি)। কেবল দক্ষিণ গুজরাট ও সৌরাষ্ট্রের কিছু অংশে বৃষ্টি হতে পারে বলে জানান আইএমডির আহমেদাবাদ শাখার পরিচালক মনোরম মোহান্তি। বিশেষ বুলেটিনে তিনি বলেন, উত্তর-পূর্ব আরব সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। এতে গুজরাটের বিস্তীর্ণ অংশে বজ্র সহ বৃষ্টিপাতের সহায়ক পরিবেশ তৈরি হয়। এর প্রভাবেই গুজরাটে বৃষ্টি হচ্ছে।

বজ্রপাতে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সামাজিক প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ দেওয়া এক পোস্টে তিনি বলেছেন, ‘গুজরাটের বিভিন্ন শহরে খারাপ আবহাওয়া ও বজ্রপাতে বহু মানুষের মৃত্যুর খবরে আমি গভীরভাবে শোকাহত। এই ট্র্যাজেডিতে যারা তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন তাদের অপূরণীয় ক্ষতির প্রতি আমি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করছি। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। স্থানীয় প্রশাসন ত্রাণ কাজে নিয়োজিত রয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।