সিসিকের সাথে ইউএনডিপি ও জাইকা’র মতবিনিময় - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, সকাল ৬:৪০, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

সিসিকের সাথে ইউএনডিপি ও জাইকা’র মতবিনিময়

newsup
প্রকাশিত নভেম্বর ২৫, ২০২৩
সিসিকের সাথে ইউএনডিপি ও জাইকা’র মতবিনিময়

শরীফ গাজী সিলেট :সিসিকের সাথে জাইকা’র বন্যা মোকাবেলা ও নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থা বিষয়ক মতবিনিময়

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাথে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন এজেন্সি ( জাইকা) ও ইউএনডিপি প্রতিনিধি দলের পৃথক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৫ নভেম্বর) সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সিসিক সভাকক্ষে পৃথক এসব মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

দুপুর সাড়ে বারোটায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাথে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন এজেন্সি ( জাইকা)’র বন্যা মোকাবেলা ও নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সিলেটের বন্যা মোকাবেলা ও নগরীর পানি নিষ্কাশনের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে বিস্তর আলোচনা করা হয়। এসময় সিলেটের বন্যা মোকাবেলা ও নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নে জাইকা কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশ করে। সিসিক মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী তাদের আগ্রহকে স্বাগত জানিয়ে জাইকার সাথে কাজ করতে সিসিক সম্মত বলে জানান।

সভায় উপস্থিত ছিলেন জাইকা বাংলাদেশের চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভ ইসিগুচি টমমডি, রিপোটার অসি,ক্যামেরাম্যান থমাওশী, স্থানীয় কাউন্সিলর একেএম মঈনউদ্দিন, জাইকার প্রোগ্রামার আনিসুজ্জামান চৌধুরী।

এর আগে জাইকা প্রতিনিধি দল সিলেট সিটি কর্পোরেশনে আসলে মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী তাদেরকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান ও সিলেটের ঐতিহ্যবাহী চা উপহার দেন।

এদিকে, শনিবার (২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় সিসিক সভাকক্ষে মতবিনিময় করেন ইউএনডিপি’র একটি প্রতিনিধি দল। সিলেটে ভূমিকম্প মোকাবেলা ও পরবর্তী করণীয় বিষয়ে মতবিনিময় সভায় সিলেট নগরীতে বিল্ডিং কোড মেনে বাড়ি নির্মাণসহ ভূমিকম্প প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় বিধি-নিষেধ কার্যকরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে গুরুত্বারোপ করা হয়। এছাড়া ভূমিকম্পপূর্ব প্রস্তুতি পরবর্তী করণীয় নিয়েও আলোচনা করা হয়।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত সচিব আতিকুল হক, ইউএনডিপির সাবেক জয়েন্ট সেক্রেটারী অবেন্দু শেখর রায়, সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিমা ইয়াসমিন, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমান খান, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা বিশ্বজিত দেব, সকল তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, নির্বাহী প্রকৌশলী ও সহকারী প্রকৌশলীবৃন্দ।

অপরদিকে, চায়না ও বাংলাদেশ সরকারের সহযোগীতায় সিলেটের ৮৫ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মীকে বিভিন্ন পরিচ্ছন্নতা সরঞ্জাম তুলে দেয়া হয়েছে। শনিবার সকালে এসব পরিচ্ছন্নতা সরঞ্জাম তুলে দেন সিসিক মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। পর্যায়ক্রমে আরও পরিচ্ছন্নতা কর্মীকে বিভিন্ন পরিচ্ছন্নতা সরঞ্জাম দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।