BengaliEnglishFrenchSpanish
নিউইয়র্ক পুলিশের উচ্চপদে আরেক বাংলাদেশী-আমেরিকান সাঈদ সুমনের পদোন্নতি - BANGLANEWSUS.COM
  • ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ


 

নিউইয়র্ক পুলিশের উচ্চপদে আরেক বাংলাদেশী-আমেরিকান সাঈদ সুমনের পদোন্নতি

STAFF USBD
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
নিউইয়র্ক পুলিশের উচ্চপদে আরেক বাংলাদেশী-আমেরিকান সাঈদ সুমনের পদোন্নতি

নিউইয়র্ক : বিশ্বের অন্যতম সেরা পুলিশ বাহিনী নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগে (এওয়াইপিডি) উচ্চপদে পদোন্নতি পেয়েছেন আরেক বাংলাদেশী-আমেরিকান পুলিশ অফিসার সাঈদ সুমন। সার্জেন্ট থেকে ল্যাফটেনেন্ট পদে পদোন্নতি পেলেন সাঈদ সুমন। ২৬ ফেব্রুয়ারি বুধবার সকালে নিউইয়র্ক সিটির পুলিশ প্লাজায় এক জমকালো অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার ডারমোট শিয়া তার হাতে পদোন্নতির সার্টিফিকেট তুলে দেন। পরে সাঈদ সুমনের স্ত্রী সৈয়েদা শায়লা মাসুদ কান্তা তাকে ব্যাচ পরিয়ে দেন।

এ সময় পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চীফ অব ডিটেকটিভ হ্যারিসন, চীফ অব ট্রান্সপোর্টেশন থমাস চ্যান, চীফ অব ইন্টিলেজেন্স ব্যুরো থমাস গ্যালারি, ডেপুটি কমিশনার জন মিলার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সাঈদ সুমনের পরিবার ছাড়াও বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ অফিসার এসোসিয়েনের (বাপা) কর্মকর্তারাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ট্রাস্টি ক্যাপ্টেন আব্দুল্লাহ, জেনারেল সেক্রেটারি ও নিউইয়র্ক পুলিশের লেফটেন্যান্ট প্রিন্স আলম, সিনিয়র সহ সভাপতি সার্জেন্ট এরশাদ সিদ্দিকী, কমিউনিটি লিয়াজো মাসুদ রহমান, ইভেন্ট কো-অর্ডিনেটর সর্দার মামুন, বাপার স্ট্রাস্টি এমডি হাসনাত, মিডিয়া লিয়াজোঁ ও নিউইয়র্ক পুলিশের ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর ডিটেকটিভ জামিল সরোয়ার জনি, সার্জেন্ট সোহেল খান ও সার্জেন্ট সাইদুল। মিডিয়া লিয়াজোঁ জামিল সারোয়ার জানান, সাঈদ সুমন ১৯৯৯ সালে নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগে যোগ দেন। সে সময় মাত্র তিন থেকে চার জন বাংলাদেশী-আমেরিকান এ বিভাগে কর্মরত ছিলেন। কঠোর ত্যাগ এবং পরিশ্রমী অফিসার হিসেবে খুব অল্প দিনেই পুলিশ বিভাগে সুমান অর্জন করেন তিনি। সাঈদ সুমনসহ এ সময় এনওয়াইপিডিতে কর্মরত অফিসাররা পেশার প্রতি কমিটমেন্ট, দক্ষতা ও সেবার অনন্য নজীর স্থাপন করেন। এতে অতি অল্পদিনে পুরো পুলিশ বিভাগে বাংলাদেশি অফিসারদের সুনাম ছড়িয়ে পড়ে। অনেকটা সহজ হয়ে যায় বাংলাদেশি-আমেরিকানদের এই পেশায় যোগ দেয়ার পথ।

পুলিশ অফিসার সাঈদ সুমন ব্যক্তিগতভাবেও সবসময় চাইতেন আরও বেশিসংখ্যক বাংলাদেশিরা এই বিভাগে যোগদান করুক। কমুউনিটির জন্য কাজ করতে তিনিসহ কয়েকজন অফিসার মিলে ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশি-আমেরিকান পুলিশ অফিসার এসোসিয়েশন (বাপা) প্রতিষ্ঠা করেন। সাঈদ সুমন মুসলিম অফিসার এসোসিয়েশনের করসপনডেন্ট সেক্রেটারি ছিলেন। পদোন্নতি পেয়ে ল্যাফটেনেন্ট সাঈদ সুমন প্রথমেই পরম করুণাময় আল্লাহর প্রতি শুকরিয়া জানান। একই সঙ্গে তিনি স্ত্রী, পরিবারের সদস্য, বন্ধু, আত্মীয়, বাপাসহ পুলিশ বিভাগের সকল সহকর্মী, বিশেষ করে বাংলাদেশি আমেরিকান অফিসার, মিডিয়াকর্মী এবং বাংলাদেশি কমুউনিটির সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
সুমন সাঈদ বলেন, আমার এ পদোন্নতি এ প্রজন্মের বাংলাদেশি আমেরিকানদের মধ্যে পুলিশ বিভাগে কাজ করার আগ্রহ সৃষ্টি করবে। আর তারা এগিয়ে এলেই নিউইয়র্ককে আমরা একটা নিরাপদ সর্বোপরি সবদিক দিয়ে বসবাসের উপযোগি একটি সুন্দর নগরী গড়ে তুলতে পারবো।

উল্লেখ্য, ল্যাফটেনেন্ট সাঈদ সুমন বাংলাদেশের হবিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে তিনি স্ত্রী, ৩ মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে নিউইয়র্ক শহরের কুইন্সে বসবাস করছেন।

এই সংবাদটি 1,229 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।