পূর্বাচলে প্রতি ইউনিট পানির দাম ২০ টাকা - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, দুপুর ২:৪২, ১৭ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

পূর্বাচলে প্রতি ইউনিট পানির দাম ২০ টাকা

newsup
প্রকাশিত জানুয়ারি ২০, ২০২৩
পূর্বাচলে প্রতি ইউনিট পানির দাম ২০ টাকা

বিশেষ প্রতিবেদন: পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প এলাকায় পানির দাম নির্ধারণ করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। আবাসিক সংযোগে ১ হাজার লিটার বা এক ইউনিট পানির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ টাকা। তবে বাণিজ্যিক ব্যবহারের পানির মূল্য এখনও নির্ধারণ করা হয়নি।

ভূগর্ভ থেকে উত্তোলন করে সরবরাহকৃত পানির এই মূল্য দেশে সবচেয়ে বেশি। দেশের পৌরসভাগুলো ভূগর্ভের পানি উত্তোলন করে ১০-১৪ টাকা হারে আর ঢাকা ওয়াসা ভূগর্ভ ও নদীর পানি শোধন করে আবাসিকে ১৫ টাকা ১৮ পয়সা ও বাণিজ্যিকে ৪২ টাকা ইউনিট হারে সরবরাহ করে। পূর্বাচলের পানির এই দাম নিয়ে সমালোচনা করেছেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। পাশাপাশি পরিবেশ বাঁচাতে ভবিষ্যতে ভূগর্ভস্থ নলকূপ আর না বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন।
রাজউক একটি প্রকল্পের আওতায় চার ধাপে ১৫টি ১ হাজার ২০০ ফুট গভীর নলকূপ স্থাপন করে ৩২০ কিলোমিটার সরবরাহ লাইনের মাধ্যমে পূর্বাচল নতুন শহরে পানি সরবরাহ করবে। চীনের ইউনাইটেড ডেলকট ওয়াটার লিমিটেডের আর্থিক অংশীদারিত্বে ২০২৪ সালের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে রাজউক; যাতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৯২ কোটি টাকা। কোম্পানিটি নির্মাণকাজ শেষ করার পর ২০৩৫ পর্যন্ত পানি ব্যবস্থাপনা ও অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বও পালন করবে।

নাগরিক আন্দোলনের কর্মী স্থপতি ইকবাল হাবিব বলেন, ‘পানির উচ্চমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এই মূল্য আরও বাড়বে, যখন এর সঙ্গে পয়ঃনিষ্কাশনের মূল্য যোগ করা হবে। এখনই ২০ টাকা করা হয়েছে, অদূর ভবিষ্যতে আরও বাড়বে; যখন প্রতি বছর পানির স্তর নিচে নেমে যাবে আর রাজউককে পানি উত্তোলন করতে আরও নিচে যেতে হবে।’

পূর্বাচলের ভেতরের বালু ও ধলেশ্বরী নদীর পানি ব্যবহার না করে ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলনও অযৌক্তিক মনে করেন এই স্থপতি। তার মতে, ‘পরিবেশ বিপর্যয় এড়াতে ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবহার না করে ভূ-উপরিস্থ পানি ব্যবহার করার নীতি রাজউকের প্রকল্প নেওয়ার বহু আগেই নেওয়া হয়েছে। তাছাড়া আমাদের খাবার পানি বাদে অন্যান্য কাজে ব্যবহারে সুপেয় পানি দরকার নেই। কিন্তু রাজউক এ নীতিমালাবিরোধী কাজ করেছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।