BengaliEnglishFrenchSpanish
নিউ ইয়র্কে প্রবাসীদের মসজিদের নামে রাস্তা উদ্বোধন - BANGLANEWSUS.COM
  • ২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ


 

নিউ ইয়র্কে প্রবাসীদের মসজিদের নামে রাস্তা উদ্বোধন

ADMIN, USA
প্রকাশিত মার্চ ১৭, ২০১৯
নিউ ইয়র্কে প্রবাসীদের মসজিদের নামে রাস্তা উদ্বোধন

যুক্তরাষ্ট্রে নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশিদের পরিচালিত ‘জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার’ (জেএমসি) নামে একটি মসজিদের সামনের রাস্তা ‘জেএমসি ওয়ে’ নামকরণ করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

 

রাস্তাটির পুরনো নাম ‘১৬৮ স্ট্রিট’ পরিবর্তন করে ‘জেএমসি ওয়ে’ এর নামফলক উন্মোচন করেন কাউন্সিলম্যান ররি ল্যাঙ্কম্যান।

 

স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে এ অনুষ্ঠনে সবাইকে স্বাগত জানান মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী।

বক্তব্য দিচ্ছেন কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং

এতে ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক হামলাকারিদের বিরুদ্ধে সব জাতি-ধর্মের মানুষদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বানের পাশাপাশি নিউ জিল্যান্ডের মসজিদে হামলায় নিহদের স্বজনের সহমর্মিতা জানানো হয়।

ডেমক্র্যাটিক পার্টির জাতীয় কমিটির ভাইস চেয়ার ও কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং বলেন, “মসজিদে হামলার মধ্যে বীরত্বের কিছু থাকতে পারে না। এটি সভ্য জগতে সবচেয়ে বর্বরোচিত আচরণ। ওই হামলায় হতাহতদের গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি এবং এমন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিটি বিবেকবান মানুষকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান রাখছি।”

বক্তব্য দিচ্ছেন কংগ্রেসম্যান গ্রেগরি মিক্স

কংগ্রেসে ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির সদস্য এবং জ্যামাইকার পার্শ্ববর্তী এলাকা নিয়ে গঠিত কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক এর কংগ্রেসমান গ্রেগরি মিক্স নিউ জিল্যান্ড মসজিদে হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেন, “জেএমসি ওয়ে নামফলক উন্মোচনের মধ্য দিয়ে আমরা ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক মনোভাবকে যে প্রশ্রয় দেইনা, সে কথার জানান দিচ্ছি। সব ধর্ম, বর্ণ ও জাতিগোষ্ঠির মানুষের সমান অধিকার রয়েছে নিরাপদে দিনাতিপাত করার। এ ব্যবস্থা সোচ্চার রাখতে আমাদেরকে সবসময় যে কোন ধরনের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।”

 

নামফলক দেখাচ্ছেন কাউন্সিলম্যান ররি ল্যাঙ্কমান

 

নিউ ইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের কমিশনার জেমস ও’নীল বলেন, “নিউ ইয়র্কের সব মসজিদ, মন্দির, গির্জা, সিনগগের নিরাপত্তায় আমরা বদ্ধপরিকর। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ অটুট রাখতে আমাদের পুলিশ অফিসারেরা প্রতিটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখে কাজ করেন। তবুও সবার প্রতি অনুরোধ রাখছি চোখ-কান খোলা রাখতে। কারণ, দুষ্ট লোকদের কোন ধর্মজ্ঞান নেই। ওরা সভ্যতার শত্রু, মানবতার দুশমন। তাই ওদেরকে প্রতিহত করতে সবার সচেতন থাকার প্রয়োজন রয়েছে।”

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন স্টেট অ্যাসেম্বলিম্যান ডেভিয ওয়েপ্রিন, সিটি কাউন্সিলম্যান কস্টা কন্সট্যান্ডিনাইটস ও সিটি কাউন্সিলম্যান ররি ল্যাঙ্কম্যান।

 

এই সংবাদটি 1,226 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।